শুক্রবার   ০৩ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২০ ১৪২৬   ০৯ শা'বান ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
৪৯২

তারেক রহমানের এজেন্ট কীভাবে নির্বাচন করার সাহস পায়: নওফেল

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২০ মার্চ ২০২০  

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক ভিত্তি সবচেয়ে বেশি মজবুত। এই মহানগর আওয়ামী লীগ চার চার বার মেয়র পদে দলের মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করেছে। শুধু তাই নয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখনই যাকে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন, তাকে বিজয়ী করার জন্য সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে এবং সফলও হয়েছে।

তিনি বলেন, আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করিম চৌধুরীকে বিজয়ী করতে পারলেই আমাদের দল ও নেত্রীর বিজয় অর্জিত হবে। সেই লক্ষ্যে আমাদের কাজ করে যেতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) সন্ধ্যায় চসিক নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থীর প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে আয়োজিত মহানগর আওয়ামী লীগের জরুরী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, দুর্নীতির আখড়া হাওয়া ভবনের নিয়ন্ত্রক ও বহু অপকর্মের খলনায়ক সাজাপ্রাপ্ত তারেক রহমানের এক নম্বর এজেন্ট কীভাবে নির্বাচন করার সাহস পায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও আমাকে এ প্রশ্ন করেছেন। মুজিববর্ষে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নৌকার প্রতীককে যে কোন মূল্যে বিজয়ী করে শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে হবে।

মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, আমি অনেকবার বলেছি নৌকা প্রতীক আমার একার নয়, দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। চট্টগ্রামের যে কোন নির্বাচনে শেখ হাসিনা যাকেই নৌকা প্রতীক দিয়েছেন, আমাদের মধ্যে সামান্য মতপার্থক্য থাকলেও তা ধুয়ে মুছে ফেলে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিজয়ে কাজ করেছি। আমি আশা করি আপনারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এ মুজিববর্ষে নিরাশ করবেন না। নৌকার বিজয় হলে তা মুজিববর্ষের ইতিহাসের পাতায় লিপিবদ্ধ থাকবে।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, দলের কোন নেতাকর্মী নিজের পায়ে কুড়াল মারলে তা হবে আত্মঘাতী। এতে দলের ক্ষতির চেয়েও আপনাদের ক্ষতি বেশি হবে। ঐক্যের শক্তিতে বলিয়ান হয়ে কাজ করুন।

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য প্রতিটা মুহহূর্ত নিয়োজিত থাকুন। প্রকাশ্যে প্রচারণার ৮দিন মাত্র সময় আছে। সময় অপচয় না করে ছোট ছোট টিম নিয়ে ঘরে ঘরে গিয়ে দল ও প্রধানমন্ত্রীর অর্জন, সাফল্যগুলোকে ভোটারের কাছে তুলে ধরুন।

আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, চট্টগ্রামে আওয়ামী রাজনৈতিক ঘরনার পরিবারে ৪০ শতাংশ ভোটার আছে। তাদের ভোট কেন্দ্রে নিয়ে আসতে প্রত্যেককে দায়িত্ব নিতে হতে হবে। এটা সম্ভব হলে আওয়ামী লীগের বিজয় ঠেকানোর সাধ্য কারো নেই।

সভায় আ জ ম নাছির উদ্দীন মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর প্রধান এজেন্ট হিসাবে মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন বাবুলের নাম ঘোষণা করেন।

আ জ ম নাছির উদ্দীন জানান, দলের নির্দেশনা অনুযায়ী করোনা ভাইরাস থেকে জনগণের স্বাস্থ্যহানির ঝুঁকি এড়াতে বৃহস্পতিবার থেকে গণসংযোগ স্থগিত রাখা হয়। আবার গণসংযোগ শুরু হলে তা নেতাকর্মীদের এবং সাংগঠনিক ওয়ার্ডকে জানিয়ে দেওয়া হবে।

মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত জরুরী ও বর্ধিত সভায় উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান আতা, মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম, কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর