বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
সর্বশেষ:
ফোকফেস্টের পর্দা উঠছে আজ গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতা চলছেই, নিহত বেড়ে ৩২ ইডেনে বাংলাদেশ-ভারত টেস্ট দেখতে হাসিনাকে চিঠি মোদির শুরু হলো আয়কর মেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের শীর্ষ পদে আলোচনায় যারা ‘দেশ ক্ষুধামুক্ত হয়েছে, এবার লক্ষ্য দারিদ্র্যমুক্ত করা’
১৪

জোড়া খুনের মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২৩ অক্টোবর ২০১৯  

নগরে বাসা ভাড়া নেওয়ার কথা বলে ঘরে ঢুকে দুজনকে খুনের মামলায় এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। আসামির নাম মো. সোলায়মান। বুধবার পঞ্চম অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ জান্নাতুল ফেরদাউস চৌধুরী এই রায় দেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০০৯ সালের ১৮ আগস্ট নগরের কোতোয়ালি থানার বান্ডেল রোড এলাকার একটি ভবনের তৃতীয় তলায় বাসা ভাড়া নেওয়ার কথা বলে ঘরে ঢোকেন মো. সোলায়মান। একপর্যায়ে ঘরে থাকা নুর জাহান বেগমের কাছ থেকে স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। বাধা দিলে তাঁকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এই ঘটনা দেখে চিৎকার দিলে বাসার গৃহকর্মী পপি আক্তারকে (৭) খুন করা হয়। এই ঘটনায় নিহতে নুর জাহানের ছেলে ফারুক হোসেন বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। তদন্তের একপর্যায়ে পুলিশ সোলায়মানকে গ্রেপ্তার করে। তদন্ত শেষে পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়। ২০১০ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর আদালত আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু করে। ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত এই রায় দেন।

সরকারি কৌঁসুলি তছলিম উদ্দীন চৌধুরী বলেন, রায় ঘোষণার পর আসামি সোলায়মানকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন আদালত। আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ায় ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত।

রায়ের আদেশে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বাদী ফারুক হোসেন জানান, উচ্চ আদালতে যেন এই রায় বহাল থাকে।
 

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর