মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭   ১০ শাওয়াল ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
৪৯

চুরি নিয়ে সালিশে যুবক খুন, গ্রেফতার ৩

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮ মে ২০২০  

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী থানাধীন খুইদ্দারটেক এলাকায় চুরির ঘটনায় পারিবারিক কলহ মেটাতে বসা সালিশে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাতে আরিফ দোভাষ (২০) নামে এক যুবক খুনের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শুক্রবার (০৮ মে) ভোররাতে নগরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদের একজনের কাছ থেকে একটি এলজি, হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

গ্রেফতার তিন আসামি হলো- মো. কায়ছার, মো. দিদার ও শেখ আহম্মদ। এদের মধ্যে কায়ছার আরিফ খুনে মূল অভিযুক্ত।

কর্ণফুলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জোবায়ের সৈয়দ বলেন, সালিশে আরিফ দোভাষকে ছুরিকাঘাতে খুনের ঘটনায় মূল আসামি কায়ছারসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কায়ছারের কাছ থেকে একটি এলজি ও হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। 

২৫ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কর্ণফুলী থানাধীন খুইদ্দারটেক এলাকায় ছুরিকাঘাতে নিহত হন আরিফ দোভাষ। 

নিহত আরিফ দোভাষ খুইদ্দারটেক এলাকার আহমদ হোসেনের ছেলে বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় সেদিনই পারভেজ (২২) নামে এক যুবককে আটক করা হয়। তবে ঘটনার পর থেকে ছুরিকাঘাতে মূল অভিযুক্ত কায়ছারসহ অন্যরা পলাতক ছিল।

পুলিশ জানায়, বাড়িতে চুরির ঘটনায় স্থানীয়ভাবে সকালে সালিশে বসেছিল। শালিশে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে কায়ছারসহ কয়েকজন আরিফকে ছুরিকাঘাত করে। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। 

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার (কর্ণফুলী জোন) মো. ইয়াসির আরাফাত বলেন, ঘটনার দিন সালিশে বসার আগেই কায়সারসহ অন্যরা ছুরি নিয়ে প্রস্তুত ছিল। তাদের উদ্দেশ্য ছিল কথা কাটাকাটি হলে ছুরিকাঘাত করবে। এমন পরিকল্পনা করে কায়ছার বিভিন্ন লোকজনও জড়ো করে। তার দুলাভাইকেও সেদিন ঘটনাস্থলে নিয়ে আসে। কায়ছারসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছি। তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর