মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭   ০২ শাওয়াল ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
২৫৯০

চলন্ত গাড়িতে ধর্ষণ, আদালতে স্বীকারোক্তি শ্যামলের

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০১৯  

চলন্ত প্রাইভেট কারে তুলে নিয়ে মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার প্রাইভেট কার চালক শ্যামল দে (৩০) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) বিকেলে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ খাইরুল আমীনের আদালতে তিনি ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামান।

 

মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘চলন্ত প্রাইভেট কারে তুলে নিয়ে মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার প্রাইভেট কার চালক শ্যামল দে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ খাইরুল আমীনের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তিনি ঘটনার বর্ণনা দিয়ে নিজের দোষ স্বীকার করেছেন।’

 

এর আগে সোমবার (২৮ জানুয়ারি) রাতে নগরের ডিসি রোড এলাকা থেকে শ্যামলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। শ্যামল দে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া কালিপাহাড় এলাকার হরি কুমার দের ছেলে। তিনি জামালখান আইডিয়াল স্কুল সংলগ্ন এলাকার এক ব্যাংক কর্মকর্তার প্রাইভেট কার চালক।

 

রোববার (২৭ জানুয়ারি) সকালে জামালখান মোড় থেকে কৌশলে প্রাইভেট কারে তুলে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে গণি বেকারি মোড়ে নামিয়ে দেয় প্রাইভেট কার চালক শাহাব উদ্দিন ও শ্যামল দে। মঙ্গলবার ভোরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় নিহত হয় শাহাব উদ্দিন।

 

পরে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ জানায়, প্রাইভেট কার চালক শাহাব উদ্দিন ও অন্যরা মিলে স্কুল-কলেজগামী ছাত্রীদের টার্গেট প্রাইভেট কারে তুলে ধর্ষণ করে। এ চক্রের মূল হোতা শাহাব উদ্দিন। শাহাব উদ্দিন কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া মধ্যম কয়ারবিল এলাকার মফজল মিয়ার ছেলে। তিনি নগরের চেরাগী পাহাড় এলাকার এক চিকিৎসকের প্রাইভেট কার চালক।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর