শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
সর্বশেষ:
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে পরিবহন নেতাদের বৈঠক আজ নেদারল্যান্ডসের রাজধানীতে প্রথমবারের মতো মাইকে আজান অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার তদন্ত বন্ধ করছে সুইডেন দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী
৫৩২২

চট্টগ্রামে প্রবাসীর বউদের কৌশলে ধর্ষণ করেন যুবদল নেতা বাবুল

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০১৮  

 

রাউজানের  ১০ নং উত্তর গুজরা গ্রামে বেড়ে উঠে চট্টগ্রাম উত্তর  যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক চরিত্রহীন লম্পট নুরুল ইসলাম বাবুল। বাবুলের বিরুদ্ধে উত্তর গুজরাসহ রাউজান থানায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট থানা।

জানা যায়, যখন বিএনপি ক্ষমতায় ছিলো তখন বাবুলের অত্যাচারে দিশেহারা ছিলো রাউজানের মানুষজন। বাবুল একাধিকবার বিএনপির সমাবেশে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কুটুক্তি করেছেন বলে অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রাউজান থানা আওয়ামী লীগের একাধিক নেতাকর্মী। 


বাবুলের বিরুদ্ধে অভিযোগের মধ্যে উল্লেখযোগ্য অভিযোগ হচ্ছে বাবুলের চোখে যে নারীকে ভালো লাগে তাকেই সে কোনো না কোনো কৌশলে ধর্ষণ করে। যার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন একাধিক বিশ্বস্ত মাধ্যম ও ভুক্তভোগীরা।

নুরুল ইসলাম বাবুলের লালশার শিকার হয়েছেন উত্তর গুজরার একাধিক প্রবাসীর স্ত্রীরা। সম্প্রতি রুকাইয়া নামের এক প্রবাসীর স্ত্রীকে বাবুল দফায় দফায় ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেছেন ভিকটিম রুকাইয়া আক্তার।


উত্তর গুজরার রুকাইয়া বলেন, আমার স্বামী দীর্ঘদিন যাবত প্রবাসী। আমি বাবুলকে অন্য দৃষ্টিতে দেখতাম। বাবুলের পরিবারের সাথে আমাদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। একদিন আমার প্রবাসী জামাইর সাথে ঝগড়া হলে বাবুল সেটা জানতে পারে। বাবুল আমাকে বলে, রুকাইয়া তুমি তোমার জামাইকে তালাক দিয়ে দাও। তোমাকে আমরা আরো ভালো পরিবারে বিয়ে দিতে পারবো। ভালো জব দিতে পারবো। আমার হাতে অনেক লোক আছে যারা দৈনিক পাঁচ দশটা চাকরি দিতে পারে। এগুলো বলে নানা কৌশলে বাবুল আমাকে দিয়ে আমার জামাই আকবর কে তালাক দিতে বাধ্য করেছিলো।

রুকাইয়া আরো বলেন, বাবুল আমাকে বলতো রুকাইয়া আমার হাতে চাকরি দেওয়ার মতো অনেক লোক আছে, তুমি উত্তর গুজরায় না থেকে শহরে আমার বাসায় চলে এসো। তারপর আমি বিশ্বাস করে বাবুলের বাসায় গেলাম। বাবুল আমার দিকে লালশার দৃষ্টিতে সবসময় তাকাতো। একদিন বাবুলের বাসার সবাই একটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিল। আমি যাইনি, কারণ আমার জ্বর ছিলো। হটাৎ বাবুলকে দেখি আমার রুমে। আমি বল্লাম আপনি সবার সাথে অনুষ্ঠানে যাননি?বাবুল বললো না, আমি তোমার জন্য থেকে গেছি। পরিবারের সবাইকে আমি বলেছি আমার বিএনপির মিটিং আছে। এই বলে বাবুল দরজা আটকালো। তারপর আমাকে জোর করে ধর্ষণ করলো। আমি বাবুলের হাত থেকে কোনোভাবেই রেহাই পেলাম না।


কতোবার বাবুল আপনাকে ধর্ষণ করেছে জানতে চাইলে রুকাইয়া বলেন, একাধিকবার করেছেন। আমাকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে। আমার সাথে প্রথমে শারিরীক সম্পর্ক করাটা বাবুল ভিডিও করে রেখেছিলো। সেটা দেখিয়ে আমাকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন হোটেলে নিয়ে রেপ করতো চট্টগ্রাম উত্তর জেলা যুব দলের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল ইসলাম বাবুল।

আপনি থানায় অভিযোগ করছেন? জানতে চাইলে রুকাইয়া বলেন, থানায় গেলে বাবুল আমাকে খুন করবে বলেছে তাই যাচ্ছি না। আমি আল্লাহর কাছে বাবুলের বিচার চাই।


চট্টগ্রাম নগরীর বিএনপির সভাপতি ডাঃশাহদাত গ্রেফতারের পূর্বে বলেন, উত্তর গুজরার যুবদলের নেতা নুরুল ইসলাম বাবুল সম্পর্কে আমার কাছে এর আগেও ইয়াবা ব্যবসা ও নারী ব্যবসার অভিযোগ এসেছে। যা দলের এই ক্রান্তিকালে খুবই অনুচিত। আমি বাবুলকে অফিসে ডেকে বারবার বুঝানোর পরেও বাবুল একেরপর এক প্রবাসীদের বউদের ধর্ষণ করে আসছে যা যুবদলের মতো একটি আদর্শিক দলের সাথে মোটেও যায় না। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলা উত্তর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ থেকে বাবুলকে অপসারনের জন্য আমরা বিএনপি'র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জানিয়েছি।

এ ব্যাপারে বিএনপি কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি বলেন, বাবুলের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হয়েছে। চট্টগ্রাম বিএনপি অফিস থেকে নুরুল ইসলাম বাবুলের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ পেয়েছি।  আমরা নুরুল ইসলাম বাবুলকে খুব শীঘ্রই পদ থেকে অপসারণ করবো। বাবুলের মতো নেতারাই আমাদের বিএনপির সম্মান ডুবাচ্ছে বলেও মন্তব্য  করছেন  বিএনপির এই প্রচার সম্পাদক।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর