মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭   ০২ শাওয়াল ১৪৪১

চট্টলার বার্তা

‘খাশোগির হত্যাকারীদের ক্ষমার অধিকার কারো নেই’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২০  

তুরস্কের সৌদি কনস্যুলেটের ভেতর খুন হওয়া সাংবাদিক জামাল খাশোগির খুনিদের হত্যা করার অধিকার কারো নেই বলে মন্তব্য করেছেন তার বাগদত্তা হাতিস চেঙ্গিস। খাশোগির বড় ছেলে সালাহ খাশোগি নিজের বাবার খুনিদেরকে ক্ষমা করে দিয়েছেন বলে জানানোর কিছুক্ষণ পরই হাতিস এ মন্তব্য করেন।

বৃহস্পতিবার টুইটারে এক বিবৃতিতে বাবার হত্যাকারীদের জন্য ক্ষমা ঘোষণা করে সালাহ লিখেন, ‘পবিত্র রমজান মাসের পবিত্র এ রাতে আল্লাহর এক বাণীর কথা স্মরণ করছি। আল্লাহ বলেছেন: যদি কেউ কাউকে ক্ষমা করে দেয় ও সমন্বয় করে নেয়, তবে তার পুরস্কার আল্লাহই দেবেন। সুতরাং, আমরা শহীদ জামাল খাশোগির পুত্ররা ঘোষণা করছি যে যারা আমাদের বাবাকে হত্যা করেছে তাদের ক্ষমা করে দিচ্ছি। মহান আল্লাহ এর পুরস্কার দেবেন।’

এ ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়ে শুক্রবার এক পাল্টা টুইটে হাতিস বলেন, ‘তাকে যে নির্মম কায়দায় ও জঘন্য উপায়ে হত্যা করা হয়েছে, তার হত্যাকারীদের ক্ষমা করার অধিকার কারোরই নেই। জামালের জন্য ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত আমি থামব না, অন্যরা থামবে না।’

তিনি আরও বলেন, যারা হত্যা করেছে এবং যারা হত্যার নির্দেশ দিয়েছে তাদের ক্ষমা নেই।

২০১৮ সালের অক্টোবরে ইস্তাম্বুলে সৌদি আরবের কনস্যুলেটে নিজের বিয়ের জন্য জরুরি কাগজ আনতে গিয়ে খুন হন দেশটির ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগি। ওয়াশিংটন পোস্টের এই কলাম লেখকের হত্যার ঘটনা গোটা বিশ্বকে আলোড়িত করে। প্রথমে স্বীকার না করলেও পরবর্তীতে তাকে হত্যার কথা স্বীকার করে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

তাদের দাবি, জিজ্ঞাসাবাদের সময় কর্মকর্তাদের ভুলে নিহত হন ওই সাংবাদিক। তবে তার মৃতদেহের কোনও সন্ধান পাওয়া যায়নি।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িত ১৫ জনের মধ্যে ১১ জনকে অভিযুক্ত করে সৌদি কর্তৃপক্ষ। বিচারে ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজন বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড এবং বাকিরা ছাড়া পান বলে গত বছরের ডিসেম্বরে জানিয়েছিল দেশটির সরকার।

সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশনায় মূলত এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে বলে অনেকের মত। তবে এমন অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন মোহাম্মদ বিন সালমান।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর