সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৫ ১৪২৬   ০৫ শা'বান ১৪৪১

চট্টলার বার্তা
৪৪১০

কক্সবাজারে ভুয়া ব্যালট ছাপাচ্ছে বিএনপি-জামায়াত, পাঠাচ্ছে সারাদেশে

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১ ডিসেম্বর ২০১৮  

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ৩০ ডিসেম্বর ভুয়া ব্যালট পেপারের মাধ্যমে নাটক সাজিয়ে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে গোপনে কাজ করে যাচ্ছে বিএনপি-জামায়াতের প্রশিক্ষিত একদল কর্মী বাহিনী। বিশেষ করে দেশের কক্সবাজারের প্রত্যন্ত অঞ্চলকে নিরাপদ ঘাটি বানিয়ে এই ব্যালট পেপার ছাপানোর কাজ অতি গোপনীয়তার সাথে করা হচ্ছে বলে বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করেছে।

কক্সবাজার বিএনপির একাধিক সূত্র থেকে জানা যায়, কক্সবাজার জেলা জামায়াতের আমির মোস্তাফিজুর রহমানের বেনামে একাধিক ছাপাখানা রয়েছে। যেসব ছাপাখানাতে কৌশলে ভুয়া ব্যালট ছাপানোর কাজ পুরোদমে চলছে। আর রাতে রাতে তা কাগজ তৈরির কাঁচামালের সাথে সারাদেশে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে ধাপে ধাপে।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশ না করার শর্তে কক্সবাজার-৩ আসন থেকে মনোনয়ন বঞ্চিত এক নেতা জানান, পেকুয়া উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক কামরান জাদিদের নেতৃত্বে কক্সবাজার শহরের বদরমোকাম এলাকা, থানা রোড, থানার পেছন রোড, ভোলা বাবুর পেট্রোল পাম্প এলাকা, হাসপাতাল সড়কসহ শহরের বিভিন্ন প্রেসের দোকানে কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্দেশনায় তৈরি হচ্ছে ভুয়া ব্যালট। 

এতে জামায়াত নেতা হামিদুর রহমান আযাদ ও মোস্তাফিজুর রহমান অর্থ সহযোগিতা দিয়ে সরাসরি জড়িত রয়েছেন। এছাড়া কক্সবাজার-৩ সাবেক এমপি বিএনপির কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী বিষয়ক সম্পাদক লুৎফুর রহমান কাজলের কর্মী বাহিনী ভুয়া ব্যালটগুলো কৌশলে সারাদেশে পৌঁছানোর সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। মূলত কাজলের ক্যাডাররা এই ব্যালটগুলোকে পাহারা দিয়ে রাখে। আর এই কাজলের ক্যাডার বাহিনীই রাতের বেলায় এই ভুয়া ব্যালটগুলো চট্টগ্রামের নামকরা কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের কাগজ কারখানার কাঁচামালের সাথে সারাদেশে নির্বিঘ্নে চলে যাওয়ার ব্যবস্থা করে।

এ বিষয়ে উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা অ্যাডভোকেট শাহজালাল চৌধুরী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বিএনপি-জামায়াত এখন আদর্শহীন একটি দলে পরিণত হয়েছে। বিন্দু পরিমাণ আদর্শ দল দুইটির ভেতর নেই। আমাকে ভুয়া ব্যালট পেপারের জন্য অর্থ সহযোগিতা করতে জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতারা নির্দেশ দিয়েছিল। তাই দল থেকে ১৬ ডিসেম্বর পদত্যাগ করেছি। ভুয়া ব্যালট ছাপিয়ে সারা দেশকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র করছে বিএনপি-জামায়াত। মানুষের রক্তের উপর দাঁড়িয়ে তারা ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে। তাই এই জোট থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছি। কিছু দিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে দল ত্যাগ করবো।

এদিকে কক্সবাজার জেলা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক কর্মকর্তা বলেন, রাষ্ট্রবিরোধী ও আদালত অবমাননাকর উস্কানিমূলক লিফলেট ছাপার দায়ে এর আগেও কক্সবাজার শহরের বদরমোকাম এলাকার জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত একাধিক ছাপাখানা সিলগালা করে দিয়েছিল পুলিশ। বিপুল পরিমাণ রাষ্ট্রবিরোধী লিফলেট ও পোস্টারসহ ২০ জনকে আটকও করা হয়েছিল। তবে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে এবারের নির্বাচনে ভুয়া ব্যালট ছাপিয়ে বিএনপি-জামায়াত দেশে একটি খারাপ পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে। মূলত ছাপাখানাগুলোতে খুব কৌশলে কাজগুলো করছে অপরাধীরা। তাই আরও নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। অতিসত্বর ভুয়া ব্যালট ছাপানোর সাথে জড়িত ছাপাখানাগুলো ও সংশ্লিষ্ট কাজের মাস্টার মাইন্ডদের আইনের আওতায় আনা হবে।

চট্টলার বার্তা
চট্টলার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর